জাপান সরকারের বৃত্তি (স্কলারশীপ) কর্মসূচি

রিসার্চ ( গবেষণা), টিচার ট্রেইনিং (শিক্ষক প্রশিক্ষণ), জাপানি ভাষা শিক্ষা, বিশেষ প্রশিক্ষণ এবং স্নাতকোত্তর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের জন্য বৃত্তি প্রদান করে থাকে।

১) রিসার্চ ( গবেষণা) - (মাস্টার্স এবং পিএইচডি) (Monbukagakusho: MEXT)

এই বৃত্তিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকদের (গ্র্যাজুয়েট) প্রদান করা হয়ে থাকে, স্নাতকোত্তর শিক্ষার জন্য। শিক্ষার্থীগণ যে বিষয়ে পাস করেছেন সে বিষয়েই তাদেরকে পড়াশুনা করতে হবে। বয়স ৩৫ বছরের কম হতে হবে। এটি সর্বোচ্চ ২ বছরের কোর্স, যার মধ্য জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণও অন্তর্ভূক্ত। প্রায় সব কটি দেশ থেকে ৪০৪২ জনকে নেয়া হবে।

২) আন্ডারগ্র্যাজুয়েট বা অস্নাতক

আন্ডারগ্র্যাজুয়েট কোর্সে পড়াশুনা করার জন্য এই বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। ১২ বছর পড়াশুনার অভিজ্ঞতা (এইচ এস সি) থাকতে হবে। বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। ৫ বছরের কোর্স, যার মধ্য জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণও অন্তর্ভূক্ত। সব কটি দেশ থেকে ৪৬০ জনকে নেয়া হবে।

৩) কলেজ অব টেকনোলজি

জাপানের টেকনোলজি কলেজে পড়াশুনা করার জন্য এই বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। ১২ বছর পড়াশুনার অভিজ্ঞতা (এইচ এস সি) থাকতে হবে। বয়স ১৭ থেকে ২২ বছরের মধ্যে হতে হবে। ৪ বছরের কোর্স, যার মধ্য জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণও অন্তর্ভূক্ত। ৪০ টি দেশ থেকে ৮৬ জনকে নেয়া হয়ে থাকে।

৪) টিচার ট্রেইনিং (শিক্ষক প্রশিক্ষণ)

এই বৃত্তিটি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুল শিক্ষকদের জন্য। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকধারী (গ্র্যাজুয়েট অথবা সমমান) বা যারা টিচারস ট্রেইনিং স্কুল থেকে পাস করতে হবে। এই বৃত্তিটি প্রদান করা হবে, জাপানি বিশ্ববিদ্যালয়ে, বিদ্যালয়ের শিক্ষার উপর গবেষণা করার জন্য। ৬৪টি দেশ থেকে ৮৯ জনকে নেয়া হবে।

৫) বিশেষ প্রশিক্ষণ

বিশেষ প্রশিক্ষণের জন্য এই বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। ১২ বছর পড়াশুনার অভিজ্ঞতা (এইচ এস সি) থাকতে হবে। বয়স ১৭ থেকে ২২ বছরের মধ্যে হতে হবে। ৩ বছরের কোর্স, যার মধ্য জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণও অন্তর্ভূক্ত। ৪৯ টি দেশ থেকে ৯০ জনকে নেয়া হয়ে থাকে।

৬) জাপানি ভাষা

জাপানি ভাষা শিক্ষার জন্য এই বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। ১২ বছর পড়াশুনার অভিজ্ঞতা (এইচ এস সি) থাকতে হবে। বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। ১ বছরের কোর্স, যার মধ্য জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণও অন্তর্ভূক্ত। ৭৪টি দেশ থেকে ১৯০ জনকে নেয়া হবে।



এছাড়াও জাইকার উদ্যোগে JDS প্রোগ্রামের অধীনে ৩০ জন বাংলাদেশি জাপানে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাচ্ছেন।